হ্যাঁ, এটা তেমন কঠিন কোন ব্যাপার না। অনেক smartphone এ BCM4329 Chipset থাকে, যা দিয়ে সহজেই wifi এর উপর brute force চালানো যায়।

কেন secure করবেনঃ Password দিয়ে WPA2 encryption তেমন কাজের না বুঝতেই পারছেন। আপনাদের জন্য WPA3 encryption আসছে এ বছরেই। তারপরেও ভাবুন কাউকে আপন ভেবে password দিয়ে দিলেন, তারও ও তো আপন কেউ আছেন! একটা বেপার নিশ্চয়ই জানেন, একই wifi network এর সাথে connected সব device এর যেকোনো data, connected device গুলোর যে কেউ দেখতে পারে।

কিভাবে secure করবেনঃ

প্রথম কাজ হবে default router password change করা। router settings (http://192.168.0.1/ (http://192.168.0.1/) এ গিয়ে System tools >>Password option এ গেলেই username & password change করতে পারবেন।

(আমি Tp-link router ব্যবহার করি বলে tp-link এর screenshot দিলাম, অন্য router গুলোতেও প্রায় একই। কোন সমস্যা হলে comment অথবা inbox এ জানাবেন)

দ্বিতীয়ত, Wireless MAC Filter সক্রিয় করুন। এতে registered device ব্যাতিত অন্য কোন device password জানা সত্ত্বেও connect করতে ব্যার্থ হবে। এর জন্য router settings এ গিয়ে log in করে Wireless>>Wireless MAC Filter option এ গেলেই আপনার কাঙ্ক্ষিত settings পেয়ে যাবেন।

আপনার preferred device add করতে Add New button এ click করলে নতুন একটি পেজ আসবে। যেখানে আপনার device এর MAC address দিয়ে Save দিলেই সেটি register হবে। চিনতে সুবিধার জন্য description এ ব্যবহারকারীর নাম দিয়ে রাখতে পারেন। Status “Enabled” ই রাখবেন।

এখন প্রশ্ন হল MAC address কোথায় পাবেন। এর জন্য প্রথমে device টি connect করুন। এরপর মূল settings এর Wireless>>Wireless statistics এ গেলেই connected device গুলোর MAC address পেয়ে যাবেন। (কাঙ্ক্ষিত device টি সহজে চিনতে অন্যগুলো disconnect করতে পারেন)

সবশেষে Wireless MAC Filtering Enable করুন। এবার নিশ্চিন্তে wifi চালান।

Process টি একটু ঝামেলার হলেও comparatively এটি আপনার wifi network secure রাখতে সক্ষম। নতুন device add করাও ঝামেলার বেপার। এতে অবশ্য আমার আশেপাশের অনেকে ক্ষুব্ধ হন। বাসায় কেউ বেড়াতে এসে password চাইলে এত ঝামেলা দেখে রীতিমত বিরক্ত হয়ে বলে, “কত ঢং!”।

কিন্তু মনে রাখবেন, আপনার security আপনার কাছে। পাশের flat এর সুন্দরী password চাইতেই দিয়ে দিলেন, আর ভাবলেন সে এত কিছু বোঝে নাকি! কিন্তু তার বাসায় কোন বড় ভাই বেড়াতে এসে আপনারই phone এর camera চালু করে আপনার bedroom এ বসে থাকা photo তুলে ফেললো যা দিয়ে আপনাকে হয়ত blackmail করবে। তখন ভাববেন, “আমি এই camera’র দিকেই তো তাকিয়ে ছিলাম, কই ! লুকানো camera তো দেখতে পেলাম না! নিশ্চয়ই কোন ষড়যন্ত্র !”